গরু ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা আদায় ॥ টাকা ফেরত চাইতে গিয়ে কাউন্সিলরের সচিব কালা ফরহাদের নেতৃত্বে হামলা

স্টাফ রিপোর্টার :
দক্ষিণ সুরমায় কোরবানীর গরুবাহী গাড়ী আটক করে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় এবং পরবর্তীতে সেই চাঁদার টাকা 21845784_782014241990727_1411347179_o copyফেরত দেয়ার কথা বলে ওই গরুর মালিকের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ভার্থখলাস্থ কুমিল্লা পট্টি ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রিপন বক্সের কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
গরু ব্যবসায়ী ঝানু মিয়া জানান, গত কোরবানীর ঈদের ৩ থেকে ৪ দিন আগে বরইকান্দি ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বারের ভাই মো: ঝানু মিয়া কাজিরবাজার পশুর হাটে বিক্রির জন্য ট্রাকে করে ১৪টি গরু নরসিংদী থেকে সিলেটে নিয়ে আসছিলেন। গাড়ীটি দক্ষিণ সুরমার হুমায়ুন রশীদ চত্ত্বর এলাকার অভারব্রীজের উপর আসলে কালা ফরহাদ, বাবলুসহ আরো অজ্ঞাত কয়েক জন যুবক গাড়ীটির গতিরোধ করে কমদতলী অস্থায়ী পশুর হাটে নিয়ে যাওয়ার জোর জবরদস্তি শুরু করে। এক পর্যায়ে গরুর মালিক ঝানু মিয়া নিজেকে মেম্বারের ভাই পরিচয় দিলেও যুবকরা তার কাছ থেকে জোরপূর্বক ৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। অবস্থা বেগতি দেখে ঝানু মিয়া ওই সময় ওই যুবকদের সাথে কোন বিবাদে না জড়িয়ে তার গরু নিয়ে কাজিরবাজার হাটে চলে আসেন। তবে ঝানু মিয়া বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌফিক বক্্র লিপনকে জানালে কাউন্সিলর ওই টাকা ফেরত দেয়ার আশ্বাস দেন। ইতিমধ্যে ঈদের দীর্ঘদিন পার হয়ে যাওয়ায় গতকাল মঙ্গলবার ওই টাকা ফেরত চাইতে ব্যবসায়ী ঝানু মিয়া কাউন্সিলর কার্যালয়ে যান। এ সময় কাউন্সিলরের সচিব কালা ফরহাদসহ আরো ৩/৪ জন তাকে কিসের টাকা চাইতে এসেছ এ কথা বলে ঘিরে ধরে এবং এক পর্যায়ে তার উপর হামলা চালায়। তখন ঝানু মিয়া আত্মরক্ষার্থে দৌড়ে বাবনা পয়েন্টে চলে আসেন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হয়।
এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুরমা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই কামাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলে থানা ও ফাঁড়ি পুলিশের দু’টি টিম উপস্থিত হয়ে স্থানীয় মুরব্বীদের সহযোগীতায় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। এখন উভয় পক্ষের মধ্যে ঘটনাটির আপোষ মিমাংসার চেষ্টা চলছে।