জাফলং পরিদর্শনকালে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক ॥ পরিবেশ রক্ষার পাশাপাশি জনগণের স্বার্থকেও প্রাধান্য দিতে হবে

গোয়াইনঘাট থেকে সংবাদদাতা :
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেছেন জাফলংয়ের পরিবেশ রক্ষার পাশাপাশি gowainghat (sylhet) photo-16-07-2017 (2)জনগণের স্বার্থকেও প্রাধান্য দিতে হবে। যেহেতু সরকার জাফলংকে প্রতিবেশ সংকটাপন্ন এলাকা হিসেবে ঘোষণা করেছেন। তাই জাফলংয়ের প্রাকৃতিক পরিবেশ অক্ষুন্ন রেখে কিভাবে মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা যায়। সে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনায় নেওয়ার জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করা হবে বলে তিনি জানান।
তিনি শনিবার সন্ধ্যায় পর্যটন কেন্দ্র জাফলংয়ের তামাবিল স্থল বন্দর, বিজিবি’র সংগ্রাম সীমান্ত ফাঁড়ি ও বল্লাঘাটের জিরো পয়েন্ট এলাকা পরিদর্শন শেষে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, সাংবাদিক, শ্রমিক নেতা ও স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে সংক্ষিপ্ত এক মত বিনিময় সভায় উপরোক্ত কথা বলেন।
গোয়াইনঘাটের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাকির হোসেন’র  সঞ্চালনায় মত বিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাফায়াৎ মুহাম্মদ শাহেদুল ইসলাম, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের উপ পরিচালক রবিউল ইসলাম, সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) আবুল হাসনাত খান, ইউএনডিপি’র চিফ টেকনিক্যাল এডভাইজার শর্মীলা রাসুল, ইউএনডিপি’র ইয়াম নাথ শর্মা, গোয়াইনঘাট থানার ওসি মো. দেলওয়ার হোসেন, পূর্ব জাফলং ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান লেবু, গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক করিম মাহমুদ লিমন, ইউপি সদস্য আতাউর রহমান আতাই প্রমুখ।