সেবকের লোভনীয় অফারের মাধ্যমে গ্রাহকের ৬ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ, জকিগঞ্জের দুজন কারাগারে

জকিগঞ্জ থেকে সংবাদদাতা :
সেবা বন্ধন কল্যাণ সমিতির সদস্য করে লোভনীয় অফারের মাধ্যমে গ্রাহকের ৬ লক্ষ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় বুধবার সেবকের এমডিসহ দ’ুজনের জামিন ন’মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন সিলেটের ৬ নং আমলী আদালত। জামিন না’মঞ্জুরকৃতরা হলেন, সেবকের এমডি জকিগঞ্জের খলাদাফনিয়া গ্রামের মাওলানা আব্দুস সালামের ছেলে মো. মঞ্জুরে মওলা (৫০) ও মাঠকর্মী জকিগঞ্জের উত্তর কসকনকপুর ডরেরমোরা গ্রামের মাওলানা আব্দুল ওয়াদুদের ছেলে মাওলানা ওলিউর রহমান (৩৫)। বিগত বছরের ৪ এপ্রিল জকিগঞ্জের সেনাপতিরচকের মিছির আলীর ছেলে মাওলানা আইনুল হক সেবা বন্ধন সোসাইটি কল্যাণ (সেবক) এর মো. মঞ্জুরে মওলা ও মাঠকর্মী মাওলানা ওলিউর রহমান ও হাফিজ ফয়সল আহমদকে আসামী করে ব্যবসার মূলধন ৬ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ১ম আদালত সিলেটে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং সিআর ৪৩/১৬। পরে জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট, ৬ নং আমলী আদালত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে তদন্তের নির্দেশ দিলে মামলাটি পিবিআই সিলেটের এসআই লিটন চন্দ্র পাল তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।
আদালতে দাখিলকৃত প্রতিবেদনে পিবিআইর তদন্তকারী এসআই লিটন চন্দ্র পাল উল্লেখ করেন, মামলার বিবাদীরা সেবা বন্ধন কল্যাণ নামক সমিতি ও বিভিন্ন ভুয়া প্রকল্প খুলে লোভনীয় অফার দিয়ে মামলার বাদীর সরল বিশ্বাসের সুযোগে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ৬ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করে। যা ৮ বছরের মুনাফাসহ ১৮ লক্ষ টাকা হয়। বুধবার এ মামলায় সেবকের এমডি মো. মঞ্জুরে মওলা (৫০) ও মাওলানা ওলিউর রহমান (৩৫) আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত তাদের জামিন ন’মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। অপর আসামী মাওলানা ওলিউর রহমানের বড় ভাই হাফিজ ফয়সল আহমদ (৪০) এখনো পলাতক রয়েছেন।