কোম্পানীগঞ্জে প্রেমিককে দিয়ে স্বামী ও মেয়েকে হত্যার রহস্য উদঘাটন

স্টাফ রিপোর্টার :
কোম্পানীগঞ্জে চাঞ্চল্যকর জোড়া খুনের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মায়ের পরকীয়ার দেখে ফেলায় প্রেমিককে দিয়ে স্বামী ও মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের তদন্তে উঠে এসেছে। হত্যা তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার নিজেদের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন।
এতে পিবিআই সিলেটর বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল করিম মল্লিক বলেন, চাঞ্চল্যকর এ মামলার রহস্য উদঘাটনের অনেকদিন ধরে কাজ করছে পিবিআই। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে পুলিশ জানতে পারে মামলার বাদী নিহত রুলির মা রুশনা বেগমের সাথে একই এলাকার মখন মিয়ার পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। মেয়ে রুলি তা দেখে ফেলায় মেয়েকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মা।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ৮ আগস্ট কোম্পানীগঞ্জের একটি হাওরে পুটামারা এলাকার রুলি বেগম ও তার স্বামী আব্দুস সালামের লাশ পাওয়া যায়। চাঞ্চল্যকর এ মামলার রহস্য উদঘাটনের কাজ শুরু করে পিবিআই। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে পুলিশ জানতে পারে মামলার বাদী নিহত রুলির মা রুশনা বেগমের সাথে একই এলাকার মখন মিয়ার পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। মেয়ে রুলি তা দেখে ফেলায় মেয়েকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মা। ৮ আগস্ট রুলি ও তার স্বামী আব্দুস সালাম নৌকযোগে বাজার থেকে ফেরার পথে মখন ও তার সহযোগীরা টাইয়াপাগলা বড় হাওরে তাদের হত্যা করে। এ ঘটনায় পিবিআই গত  ১০ এপ্রিল রুশনা ও মখনকে আটক করে। তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে খুনের কথা স্বীকার করেছে। শীগ্রই এ মামলার অভিযোগপত্র দেয়া হবে বলে জানিয়েছে পিবিআই।