মতবিনিময় সভায় ত্রাণমন্ত্রী মায়া ॥ যাদের কারণে হাওরে ক্ষতি তাদের চিহ্নিত করা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার :
সুনামগঞ্জ ও সিলেটের বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন Montri Maya Pic 20.4.17চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, যাদের কারণে হাওরে ক্ষতি, তাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে একজনকে প্রত্যাহারও করা হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, হাওরে বাঁধ নির্মাণে অনিয়মের কারণেই এই ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যারা এই অনিয়ম-দুর্নীতির সাথে সাথে জড়িত তারা সংখ্যায় খুব কম। তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত হাওরবাসীর খাদ্যের কোন অভাব হবে না। যতোদিন নতুন ধান না ফলছে, অবস্থা স্বাভাবিক না হচ্ছে, ততোদিন সরকারের পক্ষ থেকে হাওরবাসীকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে। সভার আগে মন্ত্রী সিলেটের ক্ষতিগ্রস্ত হাওর এলাকা পরিদর্শন করেন ও বন্যায় হাওরবাসীর ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে অবহিত হন।
বিএনপির সমালোচনা করে মায়া বলেন, তারা ঢাকায় বসে বিভিন্ন ফতোয়া দিচ্ছে। কিন্তু কেউ এখানে এসে হাওরবাসীর পাশে দাঁড়াতে দেখলাম না। জামায়াত ছাড়া সকল রাজনৈতিক দলকে ক্ষতিগ্রস্ত হাওরবাসীর সাহায্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান মন্ত্রী।
সভায় উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ কামাল, সিলেটের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান ইরন মিয়া, লামাকাজী ইউপি সদস্য হেলাল মিয়া, কাঞ্চন চক্রবর্তী, চমক আলী, মখসুছ মিয়া, নুরুজ্জামান, ফাতেমা বেগম,কাঞ্চন মালা, সবিতা রানী দাস প্রমুখ।